ঢাকা মঙ্গলবার, আগস্ট ২০, ২০১৯

সাকিবকে না পেয়েই ঢাকাকে সুবিধা দিতে সব পাল্টে গেল

Spread the love

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের আগামী আসর শুরু হবে ডিসেম্বরে। তার মধ্যেই শুরু হয়েছে যত নাটক। সবকিছু দেখার পর আপাতত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে ঢাকা ডায়নামাইটসকে সুবিধা দিতেই সমস্ত কার্যক্রম করা হচ্ছে বিপিএলে।

কি সেই সুবিধা? কি হচ্ছে কার্যক্রম?

কিছুদিন আগেই তামিম ইকবাল এবং মুশফিক নিজ নিজ পছন্দের দলের সাথে চুক্তি করেছে। তখন বিসিবি বা বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল কোন রকম উচ্চবাচ্চ করেনি। সবকিছুই ঠিক ছিল।

এরপর দলগুলো বিদেশী তারকাদেরও কেনা শুরু করল। বেশ কিছু তারকা নিশ্চিতও হয়ে গেল বিপিএলে আসা নিয়ে। এবারও বিসিবি বা বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল কোন রকম উচ্চবাচ্চ করেনি।

কিন্তু সাকিব আল হাসানকে কেনার পরই সমস্ত নাটকের শুরু।

ঢাকা ছেড়ে রংপুর রাইডার্সে যোগ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। নিয়মেই আছে, প্রতিটা আইকন খেলোয়াড় তার পছন্দ মত দল বেছে নিতে পারবে। কিন্তু তাহলে সাকিব বা রংপুরের ভুলটা কোথায়?

যদি ভুল হয়েই থাকে তাহলে তো একই ভুল করেছে তামিম ও মুশফিক। তাদের সময়ে কেন কোন কথা প্রশ্ন উঠল না?

এরপর আজকে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ঘোষণা করে যে, প্রতিটা ফ্রাঞ্চাইজিকে নতুন করে নিবন্দন করতে হবে এবং নতুন করে মালিকানা নিতে হবে। যার কারণে, এখন পর্যন্ত যে যত তারকা কিনেছে সবকিছু বৃথা। নতুন করে আবার তাদের সাথে চুক্তি করতে হবে।

নাটক যাই হোক, সাকিবকে রংপুরের চাই। যদি সাকিবকে না পায় তাহলে বিপিএল ছাড়ার হুমকি দিয়েছেন রাইডার্সের প্রধান নির্বাহী ইশতিয়াক সাদিক।

তিনি বলেছেন, ‘এটা গুরুত্বপূর্ণ নয় আমরা বিএপিএলে অংশ নেব নাকি না। আমরা প্রতি বছর ১০ থেকে ১৫ কোটি টাকা খরচ করি। প্রতি বছর তারা (বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল) ভিন্ন ভিন্ন আইডিয়া নিয়ে হাজির হয়। প্রয়োজনে আমরা খেলব না কারণ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অনেক দল রয়েছে এবং তাদের খেলার সুযোগ করে দিক।

এখানে প্রয়োজনে তাদের খেলার সুযোগ করে দিক কথা দিয়ে কার প্রতি ইঙ্গিত করেছে তা নিশ্চই পাঠকদের বুঝতে সমস্যা হচ্ছে না।

মুলত ঢাকা ডায়নামাইটসকে বেশি সুবিধা দিতে গিয়েই বিপিএল এখন প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। দেখা যেত যে, সাকিব যদি ঢাকাতেই থাকত তাহলে এগুলোর কিছুই হচ্ছে না।