ঢাকা সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

নেইমারকেই ভালোবাসে পিএসজির সেই সমর্থকরা

Spread the love

“আমি বার্সাতে যেতে চাই। অন্য কোন ক্লাবের সাথে আলোচনা করার দরকার নেই।” কথাটি নেইমার বলেছিল পিএসজির স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দোকে। ট্রান্সফারের সময় এভাবেই বার্সাতে আসতে চেয়েছিলেন ব্রাজিলিয়ান তারকা।

তবে চতুর পিএসজি বিভিন্ন কৌশলে ঠিকই নেইমারকে নিজেদের দলেই রেখে দেয়। বার্সার কম টাকার অফারের জন্য নেইমার নিজের পকেট থেকে ২০ মিলিয়ন ইউরো দিতেও রাজি ছিল। কিন্তু কিছুতেই পিএসজি ছাড়া হয়নি নেইমারের।

অগত্যা ক্লাব ছাড়তে না পেরে নেইমার মাঠে নামেন পিএসজির হয়েই। কিন্তু প্রথম দিনেই দেখেন অন্যরকম এক চিত্র। আর সেই চিত্র কারও পছন্দ হওয়ার নয়।

পিএসজির ভক্তরা নেইমারকে ব্যঙ্গ করে বিভিন্ন রকম ব্যানার লিখে আনে। তাকে পতিতালয়ে বিক্রি করে দেয়ার জন্য তার বাবার উদ্দেশে লেখা ব্যানার নিয়েও আসে তারা।

তবে নেইমার এসব গায়ে না মেখে বলেছিল- আমি এখানে দলকে সাহায্য করার জন্য এসেছি। আমার কাজ আমি পূর্ণ করতে এসেছি। এই ক্লাবের জন্য আমি আমার জীবন দিতেও প্রস্তুত যাতে করে দিন শেষে সবাই একসাথে শিরোপা উৎযাপন করতে পারি।

ভক্তদের জন্য বলেছিলেন- তাদের সাথে আমার সম্পর্ক অনেকটাই গার্লফ্রন্ডের মত। কখনো কখনো অভিমান হয়। আবার সেই রাগ ভাঙানোর জন্য আদর ভালোবাসা করতে হয়। অভিমান যতই থাকুক, তাদের মধ্যে ভালোবাসা কমতি থাকে না। এক সময় সবই স্বাভাবিক হয়ে যায়।

এরপর নেইমার পিএসজির হয়ে খেললেন ৪টি ম্যাচ। পিএসজি জিতল ৩টি। তিনটা ম্যাচেই জিতেছে ১-০ গোলে। আর তিনটি ম্যাচেই গোল করেছেন নেইমার। এরমধ্যে আবার রয়েছে দর্শনীয় বাইসাইকেল কিকে গোল।

আর এসবের পর স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে সবকিছু। ভক্তরাও এখন নেইমারকে আবারও আগের মতই ভালোবাসা শুরু করেছেন।

সম্প্রতি ফ্রান্সের গনমাধ্যম প্যারিস ইউনাইটেডের এক জরিপে উঠে এসেছে এমনই তথ্য। নেইমার ট্রান্সফারের সময় বার্সাতে যেতে চাওয়ার কারণে যে কষ্ট তারা পেয়েছিল, সেজন্য নেইমারকে ক্ষমা করে দিয়েছে তারা। এখন তারা নেইমারকে আগের মতই ভালোবাসে।

জরিপে অংশ নিয়েছিল ২০ হাজারের বেশি মানুষ যাদের মধ্যে ৭০ শতাংশই নেইমারকে ক্ষমা করে দিয়েছে হিসেবেই ভোট দেয়।