ঢাকা বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৯, ২০২০

নারিকেল কুড়িয়ে এবং হেটে অনুশীলনে যাওয়া ফুটবলারের পাশে ক্যাসমিরো-আলভেস

ক্যাসমিরো এবং দানি আলভেস। ব্রাজিল জাতীয় দলের দুই সেরা তারকা যারা একজন তরুণ ফুটবলারের পাশে দাড়িয়েছেন যিনি নিজে একজন ফুটবলার হওয়ার জন্য অনেক আত্মত্যাগ স্বীকার করে যাচ্ছেন।

এই গল্পটি হল ১৯ বছর বয়সী তারকা গ্লেইসনের যিনি একজন মিডফিল্ডার এবং খেলেন পেট্রোলিনার হয়ে। তিনি রীতিমত মানুষের হৃদয় জয় করে নিয়েছিলেন যখন তার দল কোপা সাও পাওলোতে প্রথমবারের মত অংশগ্রহন করেছিল।

তারা সবগুলো ম্যাচেই হেরেছিল। কিন্তু ম্যাচে দর্শক এবং বেশ কিছু ক্লাবের পরিদর্শকদের মন জয় করেছিলেন গ্লেইসন।

ব্রাজিলিয়ান এই তরুণের গল্পটা এবার বলা যাক। বাবার সঙ্গে একটি মাঠে কাজ করেন তিনি যেখানে তারা নারকেল কুড়ান। দিনে তারা প্রায় ২ হাজার নারকেল কুড়াতে পারেন এবং থেকে ব্রাজিলিয়ান মুদ্রায় ৪০ রিয়াল পান যা ইউরো হিসেবে মাত্র ৮ ইউরোর সমান।

বাবাকে এই কাজে সাহায্য করে তিনি ছুটেন তার দলের সঙ্গে অনুশীলনে যেখানে যেতে তাকে পাড়ি দিতে হয় ১২ কি.মি। এই রাস্তাটা যেতে হয় তাকে দৌড়েই। কেননা, হেটে গেলে সময় বেশি লাগবে এবং বাসে যাওয়ার জন্য তার কাছে টাকাও নেই। গড়ে ৩০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় প্রতিদিন তাকে যেতে হয়।

এই তরুণ বলেছিল তার আইডল ক্যাসমিরো এবং এই গল্পটি রিয়াল মাদ্রিদ তারকার কানে পৌছায়। এরপরই এই তরুণ তারকার কাছে বার্তা পাঠায় ক্যাসমিরো।

তিনি বলেন, “তুমি ১২, ১৫ কিংবা ২০ কি,মি হেঁটে যেতে পারো, কিন্তু তোমাকে অবশ্যই স্বপ্নের দিকে যেতে হবে।”

এই গল্পটা পৌছেছে দানি আলভেসের কাছেও। তিনি বলেন, “হ্যালো, আমি উত্তর-পূর্ব থেকে একজন খেলোয়াড় হিসেবে বলছি।

“আমি আপনাকে জানাতে চাই যে এটি আমাদের জন্য একটি সম্মানের এবং তৃপ্তির এটা জানতে পেরে যে এখানে এমন কিছু লোক রয়েছে যারা আমাদের শিল্পকে মূল্যবান বলে গণ্য করেন, যারা আমাদের লোকদের মূল্য দেন।

“আমরা, উত্তর পূর্বের প্রতিনিধি হিসাবে, খুব খুশি”