ঢাকা সোমবার, মে ২৫, ২০২০

ফ্রান্স বনাম আর্জেন্টিনা, মুল লড়াই হবে যে পজিশনে

আজ থেকে শুরু হচ্ছে নকআউট পর্ব। আর নক আউট পর্বের শুরুতেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিবে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। কিন্ত কে হবে সেই দলটি তা বুঝা যাবে আজ রাত আটটায় যখন মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স।

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার পারফর্মেন্সে ভাটার টান। গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই ম্যাচে আর্জেন্টাইন তারকাদের খুঁজেই পাওয়া যায়নি। তবে তৃতীয় ম্যাচে স্বরুপে ফিরেছে দলটি। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনই এখন স্বপ্ন দেখাচ্ছে আর্জেন্টিনাকে।

অন্যদিকে ফ্রান্স গ্রুপ পর্বের তিনটি ম্যাচেই অপরাজিত থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এরমধ্যে দুটি ম্যাচে তারা জিতেছে এবং ড্র করেছে একটি। তিনটি ম্যাচে সব মিলিয়ে প্রতিপক্ষে জালে তারা দিয়েছে ৩ গোল। পেরুর জালে একটি, অষ্ট্রেলিয়ার জালে ২টি এবং ডেনমার্কের জালে গোলই করতে পারেনি।

গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনাও প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়েছে ৩ বার। কিন্তু তারা গোল হজম করেছে ৫টি। প্রতটি ম্যাচেই গোল হজম করেছে তারা। আর দুই দলের শক্তির পরীক্ষাটাও তাই সেখানেই হবে।

ফ্রান্সের আক্রমন ভাগে আছে গ্রীজম্যান, এমবাপ্পে ও ডেম্বেলে। এদের সাথে আছে জিরদ ও ফেকির। সব মিলিয়ে বেশ সমৃদ্ধ আক্রমন ভাগই তাদের। অন্যদিকে আর্জেন্টিনার আক্রমন ভাগেও আছে মেসি, অ্যাগুয়েরু, হিগুইন, প্যাভন, ডি মারিয়ার মত তারকারা। এই লড়াইয়ে কেউই কাউকে ছাড় দিতে নারাজ।

তবে ফ্রান্সের মাঝমাঠ এবং আর্জেন্টিনার মাঝ মাঠে বিস্তর ফারাক। তেমনি ফারাক দুই দলের ডিফেন্স লাইনে। আর আর্জেন্টিনার মাঝমাঠ আর ডিফেন্স যে কতটা দুর্বল সেটা গ্রুপ পর্বে শক্তিশালী মাঝমাঠ সম্বলিত ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষেই দেখা গেছে। মড্রিচ, মানজুকি, পাজিনিকদের নিয়ে গড়া ক্রোয়েশিয়ার মাঝ মাঠের সামনে দাড়াতেই পারেনি আর্জেন্টিনার ম্যাশ্চেরানো, প্যাভন, মেজরা। আর মাঝ মাঠ ভঙ্গুর হলে সেই দলের অবস্থা কতটা সোচনীয় হতে পারে সেটা দেখিয়েই দিয়েছে ক্রোয়াটরা।

তাই আজকে আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্সের মুল লড়াইটা মাঝমাঠেই হবে সেটা বুঝাই যায়।