ঢাকা সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯

সাকিবের কথা ক্রিকেটের উন্নতির জন্যই

Spread the love

বাংলাদেশ জাতীয় দলের কয়জন ক্রিকেটার নিয়মিত পারফর্ম করে? এমন প্রশ্ন করলে খোদ নির্বাচকরাও মাথা চুলকাতে বাধ্য হবে। কেননা, নিয়মিত পারফর্ম করার গ্যারান্টি দিতে পারে এমন ক্রিকেটার বাংলাদেশের খুব বেশি নেই। তাই গড়পড়তা যারা আছে তাদের নিয়েই চালিয়ে দিচ্ছে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের তিনজন ক্রিকেটার ভালো করেছে। নিয়মিত পারফর্মারদের মধ্যে সাকিব আল হাসান এবং মুশফিকুর রহীম ব্যাট হাতে ভালো করেছে প্রায় ম্যাচেই। বোলিংয়ে মুস্তাফিজ নিয়েছে ২০ উইকেট।

এরপর? তামিম, সৌম্য, রিয়াদ, লিটন? প্রশ্ন করুন, উত্তর আসবে না। তাহলে কি করা উচিত বাংলাদেশের?

কিছুদিন আগে সাকিব আল হাসান বলেছিল বাংলাদেশের উচিত ভারতের পদ্ধতি অনুসরণ করার। তারা যেভাবে সিনিয়র খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দিয়ে নতুনদের সুযোগ দেয় সেটা করার দিকেই ইঙ্গিত করেছিলেন সাকিব আল হাসান।

বাংলাদেশের পরবর্তি ক্রিকেটার উঠিয়ে আনার জন্য এর চেয়ে ভালো আর কিছুই হতে পারে না। জিম্বাবুয়ে, স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ডের মত দলগুলোর সাথে সিরিজ আয়োজন করে সেখানে তরুণদের সুযোগ দেয়া যেতে পারে। এতে করে উঠে আসার সুযোগ পাবে নতুন নতুন ক্রিকেটার।

যদি এটা না হয়? তাহলে কি হবে?

বাংলাদেশের ঘরোয়া কোচ হিসেবে পরিচিত সালাউদ্দি বলেছিলেন, ট্যালেন্ট বলে বলে কতদিন খেলাবেন? আসলেই তো? প্রতিভা আছে, সেটা দেখাবে, এই আশায় আপনি কতদিন সুযোগ দিবেন একজনকে? তাকে ২ ম্যাচ বসিয়ে নতুন একজনকে তো সুযোগ দিয়ে দেখা যেতে পারে?

মাত্রই একটা বিশ্বকাপ শেষ হল। আগামী বিশ্বকাপ আসার আগেই যদি বাংলাদেশ দলকে বিশ্বের দরবারে ভালো হিসেবে প্রমান করতে চায় এবং ব্যাকআপও ভালো তৈরি করতে চায় তাহলে অবশ্যই এই কাজটি করা উচিত।