ঢাকা বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৯, ২০২০

মাশরাফির উচিত অবসরের ঘোষণা দেয়া

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার ওয়ানডে ক্যারিয়ার নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। অনেকেই মনে করছেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাশরাফি বিন মর্তুজার ওয়ানডে সিরিজটি হবে তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ সিরিজ।

তবে অনেকে যেটা মনে করছেস সেটাই ঘোষণা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। জানিয়েছেন জিম্বাবুয়ের সিরিজটি হবে মাশরাফির শেষ সিরিজ।

তিনি জানিয়েছেন, এই সিরিজে মাশরাফিই অধিনায়ক থাকবে। সে এই সিরিজটি খেলবে। এটা হবে তার শেষ সিরিজ।

তবে মাশরাফি যদি অবসর না নেয় তাহলে কি করবে বিসিবি? পাপন জানিয়েছেন, আগামী বিশ্বকাপের জন্য একজন স্থায়ী অধিনায়ক নিয়োগ দেয়ার কথা ভাবছে বিসিবি। মাশরাফি তো আর আগামী বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলতে পারবে না। তাই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের পরই নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করা হবে।

তিনি বলেন, যদি মাশরাফি অবসর না নেয় এবং আমরা যদি নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করি তাহলে মাশরাফি যদি পারফর্ম করে দলে আসতে পারে আসবে।

অর্থাৎ পাপনের কথাতে স্পষ্ট যে মাশরাফি অবসর না নিলেও তার ক্যারিয়ার এখানেই থেমে যেতে পারে। তবে যদি মাশরাফি অবসরের ঘোষণা না দেয় তাহলে তো বিসিবির পক্ষ থেকে তার অবসর উপলক্ষে কোন অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পারবে না। সেজন্য বিসিবি সভাপতি চাচ্ছেন যেন মাশরাফি তার অবসরের ঘোষণা দেয়।

তবে এটা পরিষ্কার যে যদি মাশরাফি অবসরের ঘোষণা না দেয় তাহলে তাকে হয়তো মাঠের বাইরে থেকেই অন্যান্য সাবেকদের মত বিদায় নিতে হবে। তাই মাশরাফি যদি সম্মানের সঙ্গে মাঠ থেকে বিদায় নিতে চান তাহলে তার অবসরের কথা বলতে হবে।

কিন্তু মাশরাফি এর আগে যে ধরণের ইঙ্গিত দিয়েছেন তাতে খুব সম্ভবত তিনি অবসরের ঘোষণা দিবেন না। দলে রাখলে খেলবেন, না রাখলে খেলবেন না এমন মনোভাব নিয়ে তিনি থাকতে পারেন।