ইসলামিক দেশে বিশ্বকাপের সময় অবৈধ যৌনতা নিষিদ্ধ

ফুটবলে সবচেয়ে বড় আসর ফুটবল বিশ্বকাপ আসলে যৌন কর্মীদের রমরমা ব্যবসা হয়ে থাকে। বিশ্বকাপের সময় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা দর্শকরা অর্থের বিনিময়ে যৌন সুখ নিতে পারতেন।

অনেক সময় দেখা গেছে শুধু মাত্র যৌনতার জন্য আলাদা ব্যবস্থা করে রাখত আয়োজক দেশগুলো। অতিতে প্রতিটা বিশ্বকাপের সময়ই এমনটা দেখা গেছে।

কিন্তু এবার ব্যতিক্রম ঘটতে যাচ্ছে কাতার বিশ্বকাপে। সেখানে যৌনতা, মাদক, পার্টিকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যদি কেউ এই আদেশ অমান্য করে তাহলে তার ৭ বছরের জন্য জেল হবে।

নভেম্বরের ২১ তারিখে এবারের বিশ্বকাপের আসর বসবে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা দর্শকরা তার আগে থেকেই হোটেল বুক করতে শুরু করে। অনেকেই বিশ্বকাপ শুরুর বেশ আগেই চলে যান আয়োজক দেশে। অনেকেই শুধু মাত্র যৌনতার জন্যও আসেন বিশ্বকাপের সময়। অনেকেই আবার সঙ্গে করে যৌন কর্মী নিয়েও আসেন।

কিন্তু এবার তাদের আসার আগেই চিন্তা ভাবনা করে আসতে হবে। কেননা উল্টা পাল্টা কিছু করলে আর দেশে যাওয়া হবে না। তখন যেতে হবে কাতারের কারাগারে।

ডেইলি স্টারে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, বিশ্বকাপের সময় কেউই অবৈধ যৌনতায় লিপ্ত হতে পারবে না। যদি সেটা হয় তাহলে সাত বছরের কারাদন্ড হবে। এছাড়া কোন পার্টি দেওয়া যাবে না। মাদক গ্রহন করা যাবে না।

ইতিহাসে প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ চালাকালে যৌনতা নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছে। তাই যারা খেলা দেখতে কাতারে আসবে তাদের সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়ে আসতে হবে।

Related posts