এবারের গল্পটা একটু ভিন্ন

২০২০ সালে যদি ব্যালন ডি অর দেয়া হত তাহলে সেটা একজনই যোগ্য ছিল। তিনি রবার্ট লেভানদস্কি। তার পাশে পাশেও কেউ ছিল না তাকে চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য।

এর আগের গল্পগুলোও অনেকটাই একই রকম। প্রতিদ্বন্দ্বীতাটা হয়েছে কেবল দুজনের মধ্যে। কখনো বা সংখ্যাটা এক বেড়ে হয়েছে তিনজন। কিন্তু এবারের গল্পটা যেন একটু ভিন্ন।

ব্যালন ডি অর এবার কে জিতবে? নিশ্চিত করে বলার সুযোগ নেই যে ওই প্লেয়ারই জিতবে। যদি কোন নির্দিষ্ট প্লেয়ারের পক্ষে কোন যুক্তি থাকে, তাহলে পাল্টা যুক্তি দেখানো যাবে অন্য কোন প্লেয়ারের পক্ষেও।

লিওনেল মেসি এবারের ব্যালন ডি অর জয়ের অন্যতম দাবীদার। গত মৌসুমটা তার কেটেছে ভালোই। ক্লাব ফুটবলে কেবল কোপা ডেল রে জিতলেও ব্যক্তিগত ভাবে উজ্জল ছিলেন তিনি। আর সবকিছু ছাপিয়ে গেছে আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন করার পর। সেটাই যেন মেসিকে তুলে দিয়েছে ব্যালন ডি অরের ফেভারিটের মঞ্চে।

এরপর আছেন চেলসির তারকা জর্জিনহো। চেলসির হয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন তিনি। জিতেছেন ইতালির হয়ে উয়েফা ইউরো কাপ। বড় দুটি শিরোপাই জিতেছেন তিনি। তার পারফর্মেন্সও ছিল দুর্দান্ত। তাই অনেকেই মনে করছেন তার হাতে উঠতে যাচ্ছে ব্যালন ডি অর।

চেলসির আরেক প্লেয়ার কান্তেকেও সম্ভাব্য বিজয়ী মানছেন অনেকেই। চেলসি যে গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে, তার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ছিল ফ্রান্সের এই তারকার।

আছেন রবার্ট লেভানদস্কি। ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় প্রায় সব শিরোপাই তাদের দখলে গেছে। নিজেও গোলের পর গোলের মালা পড়িয়েছেন প্রতিপক্ষের জালে। সব মিলিয়ে ফেভারিট তিনিও।

অনেকেই আবার রিয়াল মাদ্রিদ তারকা করিম বেনজামাকেও ফেভারিট ভাবছেন। পুরোটা মৌসুম জুড়েই দুর্দান্ত নৈপুন্য দেখিয়েছেন এই তারকা।

Related posts