মেসি নেইমারের ছায়ায় থাকতে চায়নি বলেই রিয়ালে এসেছে ভিনিসিয়াস

ভিনিসিয়াস তখনও ইউরোপে খুব একটা পরিচিত ছিল না। কিন্তু ব্রাজিলে সে যথেষ্ট পরিচিত ছিল। যদিও সে তখনও ফ্লামেঙ্গোর মূল দলে খুব বেশি ম্যাচ খেলেনি।

দুর্দান্ত প্রতিভার অধিকারী হওয়ায় স্প্যানিশ দুই ক্লাব বার্সালোনা এবং রিয়াল মাদ্রিদ তাকে কেনার জন্য ছুটে। বার্সালোনাকে টপকে শেষ পর্যন্ত সফল হয় মাদ্রিদ। আর সেই সফলতার সুবাস এখন পাচ্ছে তারা।

কিন্তু বার্সালোনার সঙ্গে নাকি ভিনিসিয়াসের প্রায় সমঝোতা হয়েই গিয়েছিল। এমন অভিযোগ শুরু থেকেই করে আসছিলেন বার্সার স্কাউল আন্দ্রে ক্যারি। তবে এবার এই বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন ভিনিসিয়াসের এজেন্ট ফেডরিকো পেনা। জানিয়েছেন বার্সাতে না আসার আসল কারণ।

ভিনিসিয়াস যখন রিয়ালের সঙ্গে চুক্তি সই করেন তখনও নেইমার বার্সাতে খেলছেন। নেইমার তখন অল্প বয়স্ক হওয়ায় তার সামনে বার্সাতে অনেক দিন থাকার সুযোগ ছিল। আবার তখন মেসিও ছিল।

নেইমার নিজেই একটা দলকে লিড করার সামর্থ্য রাখেন। সেখানে সেই নেইমারই ছিলেন মেসির ছায়ায়। এমন অবস্থায সেখানে গিয়ে নিজের ক্যারিয়ারের ক্ষতি করতে চায়নি ভিনিসিয়াস এমনটাই জানিয়েছেন ফেডরিকো।

তিনি বলেন, “ভিনিসিয়াস চায়নি নেইমার এবং মেসির ছায়ায় থাকতে। নেইমার তখন বার্সাতে মেসির আড়ালে ছিল। ভিনিসিয়াস মাদ্রিদে আসা মানে আমরা বিশ্বের বড় দুটি ক্লাবে আধিপত্য বিস্তার করার সুযোগ পাব।”

রোনালদোর বয়সটা অনেক হয়েছিল। ভিনিসিয়াস এখানে আসলে নিজের আলোতেই আলোকিত হতে পারবেন এমন সুযোগ বেশি ছিল। কেননা রোনালদোর বয়স হওয়ার কারণেই বেশি সময় খেলার সুযোগ থাকবেনা স্বাভাবিক ভাবেই। তাই রোনালদো চলে যাওয়ার পর সে নিজের নাম আরও উজ্জল করার সুযোগ পাবে সেটাও ছিল তাদের মাথায়।

ফেডরিকো বলেন, “ভিনিসিয়াসের জন্য মাদ্রিদে দ্রুতই প্রভাব ফেলার সুযোগ ছিল। বার্সায় তার ইমেজ কি রিয়ালের চেয়ে বেশি বড় হতে পারত? হয়তো হতে পারত। কিন্তু খুব বেশি পার্থক্য নেই।”

Related posts