হতে পারতেন রাজা, কিন্তু ইনজুরি হয়েছে বাধা

হতে পারতেন রাজা, কিন্তু হতে পারেননি সেটা। হতে পারতেন মন্ত্রী, হয়নি সেই গতি। হতে পারতেন দক্ষ কোন সেনাপতি, কিন্তু সেখানেও বিপত্তি।

রাজা, মন্ত্রী, সেনাপতি, কোনটাই না হলেও পেয়েছেন একজন জানের বন্ধু। সেই বন্ধু তাকে এতটাই ভালোবাসে যে তাকে ছাড়তেই চায় না। ভাবছেন সেই বন্ধুটি কে? হ্যা, নেইমারের বন্ধুটি হচ্ছে ইনজুরি।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ছোটখাট ইনজুরি লেগেই ছিল নেইমারের। তবে সেসব কোন প্রভাব ফেলতে পারেনি তার ক্যারিয়ারে। কিন্তু ২০১৪ বিশ্বকাপে কলম্বিয়ার জুনিগার করা মারাত্মক ফাউলে শনির দশা লাগে নেইমারের কপালে।

২০১৭ সালে বার্সালোনা ছেড়ে নতুন রাজ্যে গিয়ে রাজা হতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেই রাজ্যে রাজা, মন্ত্রী, সেনাপতি কোনটাই হতে পারেননি। হতে দেয়নি বন্ধু ইনজুরি।

লিওনেল মেসির সঙ্গে বন্ধুত্ব ব্যালন ডি অরের, রোনালদোর সঙ্গেও সেটাই। মেসি এবং নেইমারের সঙ্গে ব্যালন ডি অরের বন্ধুত্বের মাঝে হানা দেয়ার সম্ভাবনা ছিল নেইমারের। কিন্তু সেটা হয়নি এসব ইনজুরির কারণে।

পরিসংখ্যানও কিন্তু ইনজুরির হয়েই কথা বলছে। সুস্থ নেইমার কে নিয়ে মানুষ যতটা আশা করেছিল, ইনজুরি তাকে ততটাই অসুস্থ করে দিয়েছে। সর্বশেষ এতিয়েন্সের বিপক্ষে ম্যাচেও পরেছেন ইনজুরিতে, থাকতে হবে মাস দেড়েক মাঠের বাইরে।

২০১৭ সালে পিএসজিতে পাড়ি জমানোর পর নেইমার ক্লাব এবং জাতীয় দল মিলিয়ে ৯১টি ম্যাচ মিস করেছেন ইনজুরি এবং বিশ্রাম জনিত কারণে। যদি এই ৯১টি ম্যাচের মধ্যে ৮০ টি ম্যাচও খেলতে পারতেন তাহলেও তার ক্যারিয়ার অন্য উচ্চতায় পৌছলেও পৌছতে পারত।

২০১৭/১৮ মৌসুমে নেইমার ১২টি ম্যাচ মিস করেছিলেন লিগ ওয়ানে। এরপর ফ্রেঞ্চ কাপ, কোপা ডে লা লিগা, চ্যাম্পিয়নস লিগ মিলিয়ে মোট ২১টি ম্যাচ মিস করেছিলেন তিনি।

পরের মৌসুমে নেইমারের কোন উন্নতি ছিল না। ইনজুরি হানা দেয় তাকে এবং সেই মৌসুমে ব্রাজিল এবং পিএসজি মিলিয়ে মোট ২৪টি ম্যাচ ইনজুরির কারণে মিস করেন এবং তিনটি ম্যাচে তাকে বিশ্রাম দেয়া হয়। সব মিলিয়ে তিনি দুই মৌসুমে মিস করেন ৪৮টি ম্যাচ।

২০১৯/২০ মৌসুমে নেইমার আরও ১০টি ম্যাচ মিস করেন ইনজুরির সমস্যার কারণে। অন্যান্য কারণে মিস হওয়া ম্যাচগুলো মিলিয়ে তার সর্বমোট মিসের সংখ্যা দাড়ায় তিন মৌসুমে ৬২টি।

২০২০-২১ মৌসুমটিও নেইমারের জন্য খুব যে ভালো ছিল এমনটা নয়। সব মিলিয়ে এই মৌসুমে ইনজুরির কারণে ১৮টি ম্যাচ মিস করেন নেইমার। সেই সঙ্গে অন্যান্য কারণ মিলিয়ে তার মোট মিস দাড়ায় ৮২ ম্যাচ।

চলতি মৌসুমেও নেইমার মিস করেছে অনেকগুলো ম্যাচ। ব্রাজিলের জার্সিতে ম্যাচ মিস করেছেন, পিএসজির হয়ে লিগ ওয়ানে মিস করেছেন ম্যাচ। সব মিলিয়ে তার ম্যাচ মিসের পরিমানটা দাঁড়িয়েছে ৯১তে।

এখন আবার ৬সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে চলে যেতে হচ্ছে তাকে। এখন তিনি কতগুলো ম্যাচ মিস করেন সেটা সময়ই বলে দিবে।

Related posts