ভিনিসিয়াস, হালান্ড, এমবাপ্পের জুটির ভয়ে আছে বার্সা

বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকা ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপ্পে। তিনি বর্তমানে আছেন পিএসজিতে। কিন্তু পিএসজির সঙ্গে তার চুক্তির মেয়াদ আছে আর মাত্র ৬ মাসের।

৬ মাস পরই তার সঙ্গে পিএসজির চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। আর এই তারকা আগামী মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদে খেলতে চায় এবং পরিষ্কার করেই জানিয়ে দিয়েছেন এই বিষয়টি।

সম্প্রতি বেশ কয়েকবারই এমবাপ্পে এটা স্বীকার করেছেন যে, তার চাওয়া রিয়াল মাদ্রিদে খেলা। তিনি কেবল রিয়াল মাদ্রিদে খেলার জন্যই পিএসজি ছাড়তে চান।

তাই এখানে অন্য কোন ক্লাব এমবাপ্পেকে কেনার ইচ্ছা পোষন করলেও লাভ হবে না। যদি এমবাপ্পে ক্লাব ছাড়ে তাহলে সেটা রিয়ালের জন্যই। আর আগামী মৌসুমে ফ্রিতেই রিয়ালে চলে আসার সম্ভাবনা রয়েছে তার।

এমনিতেই বর্তমানে ভিনিসিয়াস এবং বেনজামা রয়েছে ক্লাবটিতে। দুজনেই নিজেদের সেরা ফর্মে আছেন এবং ভিনিসিয়াস জুনিয়র ক্লাবের ভবিষ্যত। আগামী ১০-১২ বছরের জন্য ভিনিসিয়াসকে নিয়ে পরিকল্পনা রিয়ালের এবং যদি সে নিজের এই ফর্ম ধরে রাখতে পারে তাহলে নিশ্চিত ভাবেই ভবিষ্যতে বিশ্বের সেরা প্লেয়ার হিসেবে গন্য হবেন তিনি।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ভিনিসিয়াসের সঙ্গে বর্তমান বিশ্বের সেরা আরেক তরুণ এমবাপ্পে আসলে রিয়াল মাদ্রিদের জুটিটাই হবে আরও শক্তিশালী। তাদের সঙ্গে অভিজ্ঞ বেনজামা মিলে গড়ে তুলতে পারবে অপ্রতিরোধ্য এক আক্রমন ভাগ।

এখানে বেনজামা হয়তো আর ২-১ মৌসুম থাকবে রিয়ালে। এরপর যদি এখানে হালান্ড নিয়মিত যুক্ত হয় তাহলে কেমন হবে? ভিনিসিয়াস, হালান্ড, এমবাপ্পে। এই তিন তরুণ মিলে একই ক্লাবে তখন অন্তত এক যুগ রাজত্ব করতে পারবে।

এটা যদি হয় তাহলে রিয়ালের রাইভাল বার্সার জন্য খুবই খারাপ সংবাদ। তাই এটা কোন ভাবেই হতে দিতে চাচ্ছে না বার্সালোনা সভাপতি লাপোর্তে।

যেহেতু ভিনিসিয়াস এখন রিয়ালেই আছেন, এমবাপ্পেকেও কিছু করা যাবে না, তাই তিনি চাচ্ছেন হালান্ডকে কোন ভাবেই যেন রিয়াল মাদ্রিদ কিনতে না পারে।

বুরুশিয়া ডর্টমুন্ড তারকা আর্লিং হালান্ড আগামী সামারে বুরুশিয়া ছাড়তে পারে। তাকে কেনার জন্য মুখিয়ে আছে অনেকগুলো ক্লাব। বিশেষ করে ম্যানসিটি, রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সালোনা এবং পিএসজির নামটিই শোনা যাচ্ছে বেশি।

এরমধ্যে শোনা যাচ্ছে হালান্ডের প্রথম পছন্দ রিয়াল মাদ্রিদ। যদি রিয়াল মাদ্রিদের প্রজেক্ট তার পছন্দ হয় তাহলে রিয়ালেই আসতে পারেন এই তারকা।

অবশ্য হালান্ডকে আনতে হলে বেশ কিছু ব্যাপার আছে যা মেটাতে হবে। প্রথমত, হালান্ডকে কিনতে হলে ৭৫ মিলিয়ন ইউরো দিতে হবে বুরুশিয়াকে যা তার রিলিজক্লজ।

এরপর আছে তার বেতন। হালান্ডের চাওয়া উচ্চ বেতন যা মেটাতে হবে। আবার এটাও দেখতে হবে যেন ক্লাবের অন্যদের বেতনের সঙ্গে সেটা সাংঘর্ষিক না হয়।

তৃতীয়ত হালান্ডের এজেন্টের বড় অংকের ফি দাবী। কিছুদিন আগে শোনা গিয়েছিল ৪০ মিলিয়ন ইউরো ফি দাবী করেছেন রাইওলা। এসব চাহিদা মেটাতে হবে হালান্ডকে কেনার জন্য।

রিয়াল মাদ্রিদ তাদেরই একজন যারা এই চাহিদা মেটাতে পারে। কিন্তু বার্সালোনা মরিয়া হয়ে আছে হালান্ডকে পাওয়ার জন্য। তারা কোন ভাবেই চাচ্ছে না হালান্ড চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবে আসুক।

যদি এমবাপ্পে আসে তাহলে রিয়ালের আক্রমন ভাগ হবে ভিনিসিয়াস, বেনজামা, এমবাপ্পে। এই আক্রমন ভাগই অনেক শক্তিশালী। এদের মোকাবেলা করতেও তখন অনেক দলের ঘাম ছুটে যাবে। সেখানে যদি হালান্ড যুক্ত হয় তাহলে তো কথাই নেই।

তাই হালান্ডকে কেনার জন্য নিজের সাধ্যের মধ্যে যতটুকু সম্ভব সেটাই করার চেষ্টা করছেন লাপোর্তে।

Related posts