ক্যাসমিরো এক শব্দহীন অস্ত্র

রিয়াল মাদ্রিদের সেরা তারকা কে? অনেকেই অনেক কিছু বলতে পারেন। কেউ বলবে হ্যাজার্ড, কেউ বলবে রামোস বা কেউ অন্য কোন নামও বলতে পারেন। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদে জিদানের পরিকল্পনায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কে?

এই প্রশ্নের উত্তরের আগে একটু পেছনে ফেরা যাক। রিয়াল মাদ্রিদে প্রথম এসে যখন টানা তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতালেন তখন চারদিকে রোনালদো বন্দনা। সেই সময় এক সাক্ষাৎকারে জিদান জানিয়েছিলেন আমার দলের প্রধান অস্ত্র ক্যাসমিরো।

কিছুদিন আগে সাবেক জুভেন্টাস কোচ আলেগ্রী জিদানের মাষ্টার প্ল্যানের প্রশংসা করেছেন ক্যাসমিরোর জন্য। ক্যাসমিরোর পজিশনকে জিদানের মাষ্টার প্ল্যান বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি।

এইতো কিছু দিন আগেও জিদানকে বলা হয়েছিল ক্যাসমিরোকে কি বিশ্রাম দেয়া হবে? জিদান জানিয়েছিলেন ক্যাসমিরোর বিশ্রামের প্রয়োজন নেই।

জিদানের পরিকল্পনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কে সেটা না হয় তোলা থাক। তবে ক্যাসমিরো যে জিদানের মাষ্টার প্ল্যানের অংশ সেটা নিয়েই কথা বলা যাক।

এই তো লা লিগার ৩৭ তম রাউন্ডে ভিলারিয়ালকে ২-১ গোলে হারানোর ম্যাচেও সবাই যখন করিম বেনজামার প্রশংসা করছে জোড়া গোলের জন্য, তখন আড়ালেই পড়ে যায় ক্যাসমিরোর অবদান। রিয়ালের প্রথম গোলটির অংশও তো ছিল এই ক্যাসমিরো।

ভিলারিয়ালের একজন সেন্টারব্যাক পাস দিয়েছিলেন মাঝমাঠে এক সতীর্থকে। সহজ পাস ছিল। কিন্তু ক্যাসমিরো ট্যাকল করে সেই বল দিয়ে দিল মড্রিচকে। সেখান থেকেই তো আসলো গোলটা।

রিয়াল মাদ্রিদ শিরোপা জেতার পর ক্লাব সভাপতি বলেছেন বেনজামা বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। তার ব্যালন ডি অর প্রাপ্য। কর্তোয়ার মত দেয়ালের প্রশংসা করেছেন জিনেদিন জিদান। রামোস তো হয়ে গেছেন সিক্রেট স্ট্রাইকার। জিদানকে বলা হচ্ছে কারিগর। কিন্তু ক্যাসমিরো পরে গেলেন আড়ালেই। নেপথ্যের নায়করা সব সময় যেন আড়ালেই পরে থাকেন।

ক্যাসমিরো হচ্ছেন বুদ্ধিমান এক তারকা। এমন ভাবে ট্যাকল করতে পারেন যা প্রতিপক্ষের কাছ থেকে বল কেড়ে নিতে পারে, আবার রেফারিও কিছু বলতে পারেন না। ক্যারিয়ারের শুরুতে ক্যাসমিরো যতটা আক্রমনাত্মক ছিলেন, এখনও তেমনি আছেন। কিন্তু পার্থক্য কেবল ধরণে। এই ক্যাসমিরো বুদ্ধিমান, কৌশলে কাজ সারেন। যার কারণে এখন বল কেড়ে নিতে তাকে আর মারাত্মক ফাউল করতে হয় না।

ক্যাসমিরো এমন একজন খেলোয়াড় যিনি আক্রমন, ডিফেন্স, মিডফিল্ড সবকিছু একসঙ্গে সামলানোর কাজটা বেশ ভালোই জানেন। এই জন্যই তো বেনজামার ব্যাকহিল পাস প্রতিপক্ষের ডিবক্সে ক্যসামিরোকেই খুঁজে পেয়েছিল, কোন আক্রমন ভাগের খেলোয়াড়কে নয়।

ক্যাসমিরো কেবল ট্যাকল করে প্রতিপক্ষের খেলা নষ্টই করেনি, রিয়ালের খেলাকেও বাঁচিয়েছেন কয়েকবার। চলতি মৌসুমে ক্যাসমিরো গোল করলেই ৩ পয়েন্ট পেয়েছে রিয়াল। এই মৌসুমে রিয়ালকে ৯ পয়েন্ট এনে দিয়েছেন একমাত্র ক্যাসমিরো। এই ৯ পয়েন্ট একটু এদিক সেদিক হলেই শিরোপা হয়তো দেখা হত না রিয়ালের।

Related posts

Leave a Comment