জিদানের রিয়ালের কাছে মেসি বার্সা ও সিমিওনের অ্যাতলেটিকো শিশু!

রিয়াল মাদ্রিদের কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেয়াটা এমনিতেই কঠিন। তারউপর আবার বার্সালোনার যখন চারদিকে জয়জয়কার ঠিক ওই সময়েই রিয়ালের দায়িত্ব নিলেন জিদান। তারমধ্যে আবার আছে সিমিওনের অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ যারা ইউরোপে নিজেদের শক্তিশালী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে চলছে।

কিন্তু প্রতিপক্ষ যতই প্রভাবশালী হোক না কেন, জিদান রিয়ালকে যেন আরও এক উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। নিজের জাদুর পরশে ক্লাবটিকে এমন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন যে সেখানে যেন বার্সালোনা বা অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ শিশু।

জিদান রিয়ালের কোচ হিসেবে ছিলেন দুই মেয়াদে। প্রথম মেয়াদে রিয়ালকে আড়াই বছরে তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতিয়ে সেচ্ছায় চলে গিয়েছিলেন। এরপর ফের আসলেন এবং রিয়ালকে লা লিগা, সুপার কাপ জেতালেন।

এই দুই সময়ে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে ১২টি ম্যাচ খেলেছে জিদানের রিয়াল। এই ১২ ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদ জিতেছে ৬টি, ড্র করেছে ৪টি, হেরেছে মাত্র দুটি ম্যাচ।

এরমধ্যে আবার রয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনাল, ফাইনাল, স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালের মত ম্যাচগুলো। জিদান এই সময়ে মোট ১১টি শিরোপা জিতেছেন যেখানে সিমিওনের অর্জন ২টি।

একই কথা প্রযোজ্য বার্সালোনার ক্ষেত্রেও। যে বার্সার জয়জয়কার ছিল সেই বার্সা যেন জিদানের রিয়ালের কাছে কিছুই নয়। এই সময়ে জিদান যেখানে ১১টি শিরোপা জিতেছেন যেখানে বার্সালোনা জিতেছে মোটে ৬টি।

এল ক্লাসিকোতে জিদানের রিয়াল জিতেছে ৫টি ম্যাচ, ড্র করেছে ৩টি এবং হেরেছে মাত্র দুটি ম্যাচ।

Related posts

Leave a Comment