সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার সমার্থ্য বাংলাদেশের রয়েছে

করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বকাপ সুপার লিগ কয়েক মাস পিছিয়ে গিয়ে সেটা শুরু হতে যাচ্ছে আগামী ৩০ জুলাই থেকে। ইংল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে শুরু হবে বিশ্বকাপ সুপার লিগ।

বিশ্বকাপ সুপার লিগে র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষ ১২ দল এবং ২০১৫-১৭ মৌসুমে সুপার লিগের চ্যাম্পিয়ন নেদারল্যান্ড খেলবে। এখানে প্রতিটি দল চারটি করে মোট আটটি হোম এবং অ্যাওয়ে ভিত্তিতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে।

২০২৩ বিশ্বকাপের আয়োজক ভারত। তাই তারা সরাসরি বিশ্বকাপ খেলবে। বাকি দলগুলোর মধ্যে লড়াই শেষে শীর্ষে থাকা সাতটি দেশ খেলবে সরাসরি বিশ্বকাপ। বাকি পাঁচটি দেশ ও সহযোগী পাঁচ দেশ খেলবে বাছাই পর্ব। সেখান থেকে আসবে দুই দল। এই দশ দল নিয়ে হবে বিশ্বকাপ।

বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে হলে তাই বাংলাদেশকে থাকবে হতে সেরা আট দলের মধ্যে (ভারত সহ)। বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচক এটাকে কঠিন কাজ হিসেবে দেখছেন না। তবে ছোট দলগুলোর বিপক্ষে একটু বেশি সতর্ক থাকতে হবে জানান তিনি।

নান্নু বলেন, “গতবার কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান বাছাই পর্ব খেলেই বিশ্বকাপে এসেছিল। আমাদের জন্য সবচেয়ে বড় বিষয় হল পচা শামুকে পাঁ কাঁটা যাবে না। নিচু সারির দলের বিপক্ষে যদি আমাদের ম্যাচ হয় তাহলে প্রত্যেকটা ম্যাচেই পয়েন্ট তুলে নিতে হবে।

“বড় দলের সঙ্গে আমাদের জিততে হবে। তখন নিচু সারির দল আমাদের হারালে ঝামেলা হয়ে যাবে। আমরা র‍্যাঙ্কিংয়ে সাত নম্বরে আছি। তাই বিশ্বাস করতেই পারি বিশ্বকাপে সরাসরি খেলব।”

Related posts

Leave a Comment