ভিনিসিয়াস-বেনজামা ম্য্যাজিকে বড় জয় রিয়ালের

স্প্যানিশ লা লিগায় নতুন বছরে প্রথম ম্যাচে গেতাফের বিপক্ষে অপ্রত্যাশিত ভাবে হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। এই ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদ হেরেছিল ১-০ গোলে।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কারণে এই ম্যাচে খেলতে পারেনি ভিনিসিয়াস। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে ফিরেছেন তিনি এবং ফিরেছেন নিজেদের স্বাভাবিক ছন্দ নিয়েই।

ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে আজকের এই ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদ জিতেছে ৪-১ গোলের ব্যবধানে। ম্যাচে জোড়া গোল এসেছে ভিনিসিয়াসের পা থেকে। অন্য দুটি গোল করেন বেনজামা।

বেনজামার প্রথম গোলটি আসে প্রথমার্ধে পেনাল্টি থেকে। ক্যাসমিরোকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় রিয়াল। সেখান থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন বেনজামা।

বেনজামার এই গোলটি আবার তার রিয়ালের হয়ে করা ৩০০তম গোল। আর সামনে এখন আছে কেবল রোনালদো, রাউল এবং স্টেফানো।

বিরতির আগেই রিয়াল মাদ্রিদ আরও গোল পেতে পারত। কিন্তু তাদের সুযোগ গুলো নষ্ট হয়। তারমধ্যে মড্রিচের একটি শট বারপোস্টে লেগে ফিরে আসে।

বিরতির পর ম্যাচের ৫২ মিনিটে ভ্যালেন্সিয়ার ডিফেন্ডারদের সঙ্গে ছেলেখেলা করে গোল করেন ভিনিসিয়াস। ৪-৫জন প্রতিপক্ষের প্লেয়ারের মধ্য দিয়ে বলটি নিয়ে গোলটি করেন তিনি।

৬১ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটিও পেয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদের এই তরুণ। অ্যাসেনসিও দুর্দান্ত শট ভ্যালেন্সিয়া গোলকিপার আটকে দিলেও ফিরতি বলে হেডে বল জালে পাঠান ভিনিসিয়াস।

তিন গোল হজম করে ম্যাচের ৭৬ মিনিটে একটি গোল পরিশোধ করে ভ্যালেন্সিয়া। ৭৫ মিনিটে পেনাল্টি পায় ভ্যালেন্সিয়া। তবে গুইদেসের নেয়া পেনাল্টি শট আটকে দেয় কর্তোয়া। বল আটকে দিলেও নিয়ন্ত্রনে নিতে পারেননি। ফিরতি বলে গোল করেন গুইদেস।

ম্যাচের ৮৮ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল এবং রিয়ালের চতুর্থ গোলটি করেন বেনজামা। মেন্ডির পাস থেকে দারুণ ভাবে গোলটি করেন তিনি। গোলের পরপরই বদলি হয়ে মাঠ ছাড়েন।

শেষ পর্যন্ত ম্যাচে ৪-১ গোলের জয় পায় রিয়াল মাদ্রিদ। আর এই জয়ে শীর্ষস্থান মজবুত হল লসব্লাঙ্কোসদের।

Related posts