উত্তেজনাপূর্ণ টাইব্রেকারে শিরোপা জিতল পিএসজি

কোপা ডি লা লিগার ফাইনালে অলিম্পিক লিও এবং পিএসজির মধ্যকার ম্যাচে টানটান উত্তেজনার পর টাইব্রেকারে শিরোপা জয় নিশ্চিত করে পিএসজি। নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে গোলশূন্য থাকার পর টাইব্রেকারে কেইলর নাভাসের কল্যানে ৬-৫ গোলে জয় পায় পিএসজি।

ম্যাচের শুরু থেকেই গোলের জন্য মরিয়া ছিল পিএসজি। সুযোগ আসে মাত্র ৫ মিনিটের সময়ই। কিন্তু নেইমারের শট জালে প্রবেশ করতে পারেনি প্রতিপক্ষের বাধার কারণে। অষ্টম মিনিটে আরেকবার মিস করেন নেইমার।

ম্যাচের প্রথমার্ধে গুয়ে এবং ডি মারিয়াও সুযোগ পেয়েছিল কিছু করার। কিন্তু হতাশ হতে হয় দুজনকেই। পিএসজির আক্রমনের মধ্যে বার কয়েক সুযোগ আসে লিওর। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি তারাও।

বিরতির পরও একই রকম ভাবে এগিয়ে যায় খেলা। লিওর গোলকিপারের দারুণ নৈপুন্যে কোন বিপদ ঘটাতে পারেনি নেইমার ডি মারিয়ারা।

ফলে নির্ধারিত ৯০ মিনিট গোলশূন্য সমতা থাকার পর খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। সেখানেও শুরুতেই গোলের সুযোগ আসে পিএসজির সামনে। কিন্তু ডি মারিয়ার শট ঝাঁপিয়ে পড়ে আটকে দেন লিও গোলকিপার। পাল্টা আক্রমন থেকে দারুণ সুযোগ পেলেও মিস করে লিও তারকা ট্রাওরে। অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধটাও কাটে গোল শূন্য ভাবেই।

দ্বিতীয়ার্ধে দুর্দান্ত এক সুযোগ আসে লিওর সামনে। কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে বাম পায়ের শট নিয়েছিলেন লিওর এক তারকা। কিন্তু শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে হতাশ হতে হয় তাদের। তবে ১১৯তম মিনিটে গিয়ে ডি মারিয়াকে ফাউলের জন্য লিও ডিফেন্ডার রাফায়েল লাল কার্ড দেখেন। ডিবক্সের একটু বাহিরে থেকে ফ্রিকিক পায় পিএসজি। কিন্তু নেইমারের নেয়া ফ্রিকিক বারপোস্টের অনেক উপর দিয়ে বেড়িয়ে গেলে সুযোগ হারায় পিএসজি। খেলাও শেষ হয় সেখানেই।

নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে খেলা সমতা থাকায় নিষ্পত্তির জন্য যেতে হয় টাইব্রেকারে। সেখানে প্রথমে শট নেয় লিও। টাইব্রেকারে ৬-৫ গোলে লিওকে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করে পিএসজি।

১. প্রথম শটে গোল পায় লিও
১. প্রথম পিএসজির হয়ে গোল করেন ডি মারিয়া।

২. দ্বিতীয় শটে গোল পায় লিও
২. দ্বিতীয় শটে গোল পিএসজিকে সমতায় রাখেন ভেরাত্তি।

৩. তৃতীয় শটে গোল পায় লিও
৩. তৃতীয় শটে গোল করে পিএসজিকে সমতায় রাখেন পারেদেস।

৪. চতুর্থ শটেও গোল পায় লিও
৪. চতুর্থ শটে গোল করে পিএসজিকে সমতায় রাখেন হেরেরা।

৫. পঞ্চম শটে গোল করে লিও
৫. পঞ্চম শটে গোল করে টাইব্রেকারে প্রথম ধাপেও সমতা রাখেন নেইমার।

৬. লিওর তারকা ট্রাওরের নেয়া ৬ষ্ঠ পেনাল্টি আটকে দেন পিএসজি গোলকিপার কেইলর নাভাস।
৬. ৬ষ্ঠ পেনাল্টি মিস করেনি পিএসজি তারকা সারাবিয়া। তার গোলে জয় পায় পিএসজি।

Related posts

Leave a Comment