জিকো এবং রোমারিওর পাশে নেইমার

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে চলতি মাসে নিজেদের শেষ ম্যাচে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল ব্রাজিল। এই ম্যাচে ব্রাজিল জিতেছিল ২-০ গোলে।

ম্যাচে ব্রাজিলের হয়ে একটি গোল করেন নেইমার। করেন একটি অ্যাসিস্ট। এই গোল এবং অ্যাসিস্টের কল্যানে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে নিজের ক্যারিয়ারে মোট ১১টি গোল এবং ১৩টি অ্যাসিস্ট করলেন নেইমার। এই জন্য ম্যাচের প্রয়োজন হয়েছে ১৮টি।

বাছাই পর্বে ব্রাজিলিয়ানদের মধ্যে নেইমার এখন সর্বোচ্চ গোলের মালিক। অবশ্য নেইমার একা নয়, তার সমান ১১টি গোল আছে জিকো এবং রোমারিওর।

সাবেক দুই লিজেন্ডের পাশে বসে নেইমার বলেন, “এই সংখ্যাগুলোর জন্য আমি খুব খুশি এবং খুশি জিকো ও রোমারিওর মত দুই লিজেন্ডের কাছে পৌছতে পেরে যারা দুর্দান্ত খেলোয়াড় ছিল।

“আমি এই মুহূর্তটি আমার দলের সঙ্গে শেয়ার করব এবং ব্রাজিল দলকে সাহায্য করার জন্য আমি আমার কাজটি করে যাব।”

Related posts

Leave a Comment