রিয়াল মাদ্রিদের ভবিষ্যত নিরাপদ হাতে

রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি পেরেজ অনেক বছর ধরেই বেশ পরিকল্পনা করেই কাজ করছেন। যে রিয়াল মাদ্রিদ মার্কেটের সবচেয়ে দামী প্লেয়ারকে কিনতে অভ্যস্ত ছিল, সেই রিয়াল মাদ্রিদ এখন একেবারেই ব্যতিক্রম।

রিয়াল মাদ্রিদ সেরা প্লেয়ার কিনতে ভালোবাসত। ট্রান্সফার মার্কেট আসলেই দেখা যেত কোন না কোন বড় তারকার জন্য ছুটছে রিয়াল মাদ্রিদ।

কিন্তু বেশ কিছু বছর পূর্বে হঠাৎ করেই নিজেদের কাজের পদ্ধতি পাল্টাতে থাকেন রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি পেরেজ। বড় বড় তারকা কেনার পরিবর্তে খুঁজতে থাকেন প্রতিভাবান তরুণ প্লেয়ারদের যাদের ভবিষ্যতে সেরা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সেই খোঁজা থেকেই ব্রাজিল থেকে ভিনিসিয়াস রোদ্রিগোকে কিনে আনেন পেরেজ। ফ্রান্সের কামাভিঙ্গাকে কিনেন গত মৌসুমে। উরুগুয়ের ভালভার্দেকেও কিনে আনে। পোর্তো থেকে ব্রাজিলের সেন্টারব্যাক মিলিটাওকে কিনেন।

শুরুতে পেরেজের এই কাজ বেশ সমালোচনার মুখেই পরেছিল। মাদ্রিদ ভক্তরা যেখানে তারকা দেখতে অভ্যস্ত, সেখানে কিনা রিয়াল মাদ্রিদ হঠাৎ করে ছোট ছোট বাচ্চাদের কেনা শুরু করল?

পেরেজ কিন্তু তার পরিকল্পনা থেকে এক চুল পরিমানও সরে আসেনি। বরং নিজের পরিকল্পনায় অবিচল থেকে আরও কিছু তরুণ প্লেয়ার কিনেন। যেমন রেনিয়ের জেসুস, ভিনিসিয়াস তোবিয়াস। এছাড়াও এখনও রিউমার রয়েছে শুয়েমিনি, এন্ড্রিককে নিয়ে।

পেরেজ যে ভুল কাজ করেনি সেটার প্রমান পাচ্ছে এখন রিয়াল মাদ্রিদ। যে তরুণদের রিয়াল মাদ্রিদ কিনেছিল, সেই তরুণরাই এবার রিয়াল মাদ্রিদকে সফল হতে অনেক বড় ভূমিকা রেখেছে।

ভিনিসিয়াস জুনিয়র তো এই মৌসুমে বিশ্বের অন্যতম সেরা প্লেয়ার হিসেবেই নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। ৪২টি গোলে সরাসরি জড়িত ছিলেন তিনি। তাই গোলেই লিভারপুলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

আর ভিনিসিয়াসের গোলের অ্যাসিস্ট? সেটা এসেছে আরেক তরুণ ভালভার্দের পা থেকে। মাদ্রিদের গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তিনি।

কামাভিঙ্গা চ্যাম্পিয়নস লিগে শুরুর একাদশে ছিলেন না। কিন্তু তার মাঠে নামাটা রিয়ালের জন্য সবসময় গুরুত্বপূর্ণ হয়ে এসেছে। আর রোদ্রিগো তো এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বের ম্যাচগুলোতে রিয়ালের অন্যতম সেরা প্লেয়ারই হয়েছেন। সেটাও বদলি হয়ে নেমে।

বুঝাই যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদের ভবিষ্যত সঠিক হাতেই যাচ্ছে। অভিজ্ঞ ক্রুস, মড্রিচ, ক্যাসমিরোরা একদিন বিদায় নিবেন। তাদের জায়গা নেওয়ার জন্য ভালভার্দে কামাভিঙ্গারা তৈরি সেটা বুঝিয়ে দিচ্ছেন প্রতিটা ম্যাচে, প্রতিটা পারফর্মেন্সের মাধ্যমেই।

Related posts