এমবাপ্পের প্রয়োজন নেই, রিয়ালের আছে ভিনিসিয়াস

ফ্রান্সের তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পেকে কেনার জন্য অনেক চেষ্টা করেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। গত এক বছর ধরে রিয়াল মাদ্রিদ সবকিছু প্রস্তুত করেছে এমবাপ্পের জন্য।

এমবাপ্পে আসবে, কথা দিয়েছে, সেজন্য রিয়াল মাদ্রিদ হালান্ডকেও কেনার আগ্রহ দেখায়নি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এমবাপ্পে রিয়ালের সঙ্গে দেওয়া কথা ভঙ্গ করে পিএসজির সঙ্গেই নতুন চুক্তি করে নিয়েছে।

এমবাপ্পে রিয়ালে আসেনি। রিয়াল মাদ্রিদ তাদের পরিকল্পনায় হয়তো একটু ধাক্কা খেয়েছে। এমবাপ্পে আসলে রিয়াল মাদ্রিদের আক্রমন ভাগের শক্তি আরও বৃদ্ধি পেত নিশ্চিত ভাবেই।

লেফটে ভিনিসিয়াস এবং রাইটে এমবাপ্পে থাকলে স্বাভাবিক ভাবেই আরও শক্তিশালী হত রিয়ালের আক্রমন ভাগ। কিন্তু এখন এমবাপ্পে না আসায় কি রিয়ালের খুব বেশি ক্ষতি হয়েছে?

ভিনিসিয়াস জুনিয়রের মধ্যে সম্ভাবনা আছে বিশ্বের সেরা তারকা হওয়ার। সেই পথেই সে এগিয়ে যাচ্ছে। চলতি মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদকে নেতৃত্ব দিয়েছে সামনে থেকে।

মৌসুমে ৪২টি গোল এবং অ্যাসিস্ট করেছেন। বেনজামার পর রিয়ালের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। মোট অ্যাসিস্টে তো সবার উপরেই আছেন।

চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে গোল করে মৌসুমটাকে অনবদ্য করে রেখেছেন তিনি। সব মিলিয়ে এবারের মৌসুমে ভিনিসিয়াসের পারফর্মেন্স ছিল এমবাপ্পের চেয়ে অনেক বেশি ভালো।

এমবাপ্পে লিগ ওয়ানে ২৮টি গোল করেছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগে গোল করেছেন ৬টি। কিন্তু তিনি দলকে নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। পক্ষান্তরে ভিনিসিয়াস জুনিয়র চলতি মৌসুমে লা লিগায় ১৭টি এবং চ্যাম্পিয়নস লিগে ৪টি গোল করেছেন। কিন্তু তিনি দলের খেলায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। রিয়াল মাদ্রিদের অধিকাংশ আক্রমনের সূচনাই হয়েছে ভিনিসিয়াসের থেকে।

সর্বোচ্চ ড্রিবলিং তার। প্রতিপক্ষের ডিবক্সে সবচেয়ে বেশি বল নিয়ে যাওয়া প্লেয়ারটিও ভিনিসিয়াস। সুযোগ তৈরিতে সর্বোচ্চ স্থানে ভিনিসিয়াস। যার এমন প্লেয়ার আছে, তার এমবাপ্পের কি প্রয়োজন?

Related posts